(VPN)ভিপিএন ব্যবহারে কি ধরনের ঝুঁকি হতে পারে

(VPN)ভিপিএন ব্যবহারে কি ধরনের ঝুঁকি হতে পারে

(VPN)ভিপিএন বা ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলো যারা ব্যবহার করে থাকেন অনলাইনে প্রাইভেসি রক্ষার পাশাপাশি সুরক্ষিত থাকতে অনেকেই VPN সফটওয়্যার ব্যবহার করে থাকেন।

ব্লক বা নিষিদ্ধ করা বিভিন্ন সাইটে প্রবেশের জন্যও ভিপিএন ব্যবহার করা হয়।কিন্তু অনেকে জানেন না ভিপিএন ব্যবহারেও রয়েছে অনেক বেশী ঝুঁকি।

ভিপিএন ব্যবহারে যে কয়েকটি ঝুঁকি রয়েছে তা উল্লেখ্য করা হলো যা ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের জানা খুবই জরুরি:

১/প্রথমত ভিপিএন ব্যবহারের অনুমতি সবাই কে দেওয়া হয় না। অনুমতি ছাড়া এটির ব্যবহার বেআইনি।

২/অনলাইনে ব্যক্তিগত তথ্য অন্য স্থানে সহজেই পাচার করে দিতে পারে ভিপিএন সফটওয়্যার।

৩/বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ভিপিএন ব্যবহারকারীদের ডিএনএস তথ্য ফাঁস হয়ে যায়। আর এতেই ঘটতে পারে আপনার অনেক বড় ধরনের সর্বনাশ।সকল তথ্য ব্যবহার করে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অথবা গোয়েন্দা সংস্থা যেকোনো অনলাইন কার্যক্রমে নজরদারি করতে পারে।

৪/অনেক ভিপিএন ব্যবহারের ফলে আপনার ব্যক্তিগত গোপন তথ্য অন্য ব্যক্তির কাছে চলে যেতে পারে।

৫/অ্যান্ড্রয়েড প্লেস্টোরে আছে এমন অনেক ভিপিএন সফটওয়্যায়েরর বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত তথ্য বিক্রি ও ফাঁসের অভিযোগ রয়েছে।

৬/বিনামূল্যে ভিপিএন ব্যবহারে লাভের চেয়ে আপনার ক্ষতি অনেক বেশি হতে পারে।

৭/ভিপিএন ব্যবহারের ফলে ইন্টারনেটের গতি তুলনামূলক কমে যায়।

Leave a Reply